1. admin@sylhetbhumi24.com : admin :
শনিবার, ২৪ জুলাই ২০২১, ১০:৫৫ পূর্বাহ্ন
নোটিশ :
কঠোর লকডানে সিলেটের চা বাগানে স্বাস্থ্যবিধির বালাই নেই; স্বাস্থ্য ঝুঁকিতে শ্রমিকরা সিলেটে একদিনে  ৮ জনের মৃত্যু সিলেটে চলছে কঠোর লকডাউন শুক্রবার থেকে ২ সপ্তাহের কঠোর লকডাউন সিলেটে কোরবানির মাংসের হাট,প্রতিবছরই এই দিনে চোখে পড়ে এমন জটলা তবে এবার তুলনা মুলক কম গোলাপগঞ্জে এলিম চৌধুরীর অর্থায়নে ২০০ মানুষের মধ্যে ত্রান বিতরণ_____ বিশ্বনাথ উপজেলা বাসীকে পবিত্র ঈদুল আজহার শুভেচ্ছা জানিয়েছেন ইমতিয়াজ কামরান তালুকদার তরুণ প্রজন্মের মানবিক যোদ্ধা দানশীল ব্যাক্তি ইমতিয়াজ কামরান তালুকদার দেশ থিয়েটার সিলেটের উদ্যোগে ঈদুল আযহার ঈদ সামগ্রী বিতরণ এক সপ্তাহে সিলেট অঞ্চলে করোনায়  কেড়ে নিয়েছে অর্ধশতজনের প্রাণ ঈদুল আযহার পরে সিলেটের অবস্থা আরও ভয়াবহ হতে পারে
শিরোনাম :
কঠোর লকডানে সিলেটের চা বাগানে স্বাস্থ্যবিধির বালাই নেই; স্বাস্থ্য ঝুঁকিতে শ্রমিকরা সিলেটে একদিনে  ৮ জনের মৃত্যু সিলেটে চলছে কঠোর লকডাউন শুক্রবার থেকে ২ সপ্তাহের কঠোর লকডাউন সিলেটে কোরবানির মাংসের হাট,প্রতিবছরই এই দিনে চোখে পড়ে এমন জটলা তবে এবার তুলনা মুলক কম গোলাপগঞ্জে এলিম চৌধুরীর অর্থায়নে ২০০ মানুষের মধ্যে ত্রান বিতরণ_____ বিশ্বনাথ উপজেলা বাসীকে পবিত্র ঈদুল আজহার শুভেচ্ছা জানিয়েছেন ইমতিয়াজ কামরান তালুকদার তরুণ প্রজন্মের মানবিক যোদ্ধা দানশীল ব্যাক্তি ইমতিয়াজ কামরান তালুকদার দেশ থিয়েটার সিলেটের উদ্যোগে ঈদুল আযহার ঈদ সামগ্রী বিতরণ এক সপ্তাহে সিলেট অঞ্চলে করোনায়  কেড়ে নিয়েছে অর্ধশতজনের প্রাণ ঈদুল আযহার পরে সিলেটের অবস্থা আরও ভয়াবহ হতে পারে

শিশু মারুফকে ‘জিনে’ মেরে ফেলেছে!

সিলেটভুমি ডেস্ক
  • সময় : শনিবার, ১ মে, ২০২১
  • ৭৫ ৯৮ বার পঠিত

রাজশাহীর বাগমারায় সাত বছরের শিশু মারুফ হাসানের মৃত্যু নিয়ে রহস্যের সৃষ্টি হয়েছে। মারুফের বাবা ও সৎ মায়ের দাবি তাকে জিনে মেরে ফেলেছে। তবে মারুফের নিজের মায়ের অভিযোগ তার সন্তানকে মেরে ফেলে সৎ মা ও তার বাবা।

শুক্রবার দুপুরে লাশ দাফনের প্রস্তুতি নেওয়ার সময় পুলিশ পৌঁছে মারুফের লাশ ময়না তদন্তের জন্য রামেক মর্গে পাঠিয়েছেন। ঘটনাটি শুভডাঙ্গা ইউনিয়নের বিনোদপুর গ্রামের।

ঘটনার বিবরণ দিয়ে পুলিশ ও এলাকাবাসী জানান, মারুফের বাবা শাজাহান দিনমজুর। প্রথম স্ত্রী মারা গেলে মারুফের মা মারুফা বেগমকে বিয়ে করেন। মারুফের জন্মের তিন বছর পর শাজাহানের সঙ্গে মারুফার বিচ্ছেদ ঘটে। এরপর থেকে শিশু মারুফ সৎ মা মুক্তা খাতুন ও তার বাবার কাছেই থাকত।

এলাকাবাসী আরও জানায়, শুক্রবার সকালে শাজাহান কাজে চলে যায়। কিছুক্ষণ পর মারুফের সৎ মা স্বামীকে ফোনে জানায়, মারুফ অস্বাভাবিক আচরণ করছে। পরে পার্শ্ববর্তী কবিরাজের কাছ থেকে পানি পড়া এনে খাওয়ায়।

সকাল সাড়ে ৭টার দিকে মারুফ মারা যায়। এরপর সকাল সাড়ে ১০টার দিকে মারুফকে কাফন পরিয়ে দাফনের উদ্যোগ নেওয়া হয়।

এ সময়ে পুলিশ নিয়ে ছুটে আসেন মারুফের আপন মা মারুফা বেগম। তিনি লাশ দাফনে বাধা দিয়ে অভিযোগ করেন, তার ছেলেকে তার বাবা ও সৎ মা মিলে মেরে ফেলেছে। ফলে পুলিশ মারুফের লাশ ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠায়।

বাগমারা থানার এসআই রিপন কুমার বলেন, মারুফের বাবা, সৎ মাসহ প্রতিবেশীরা বলেছেন, মারুফ প্রায়ই অস্বাভাবিক আচরণ করত। তার ওপর জিনের আছর ছিল। অচেতন হয়ে পড়ত মাঝে মাঝে। তার আপন মায়ের অভিযোগ পেয়ে লাশের ময়নাতদন্তের ব্যবস্থা করা হয়েছে। ঘটনাটি পুলিশ খতিয়ে দেখছে।

 

সংবাদটি শেয়ার করুন:
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
🔻 আরও পড়ুন

ফেসবুকে আমরা