1. admin@sylhetbhumi24.com : admin :
সোমবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৮:১০ পূর্বাহ্ন
নোটিশ :
রাগীব রাবেয়া মেডিকেল কলেজের অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা ও বিরোধের নিষ্পত্তি মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা’র পক্ষ থেকে কমলগঞ্জে ২০০০ পরিবারের মধ্যে ১০ কেজি করে চাল বিতরণ করেন আব্দুস শহিদ এমপি বঙ্গবন্ধু কৃষিক্ষেত্রে যুগান্তকারী পদক্ষেপ নিয়েছিলেন : ড. কলিমউল্লাহ সিলেটে তরুণীকে ধর্ষণ, যুবক কারাগারে এসএমপি’র টিলাগড় পুলিশ বক্সের শুভ উদ্বোধনঃ সিলেটে ২১৪ পিস ভারতীয় এনার্জি ড্রিংকসহ ২ জন আটক শ্রীমঙ্গল উপজেলা আওয়ামীলীগ কর্তৃক আয়োজিত নির্বাচনী কার্যক্রম পরিচালনা প্রস্তুতিতে বর্ধিত কর্মীসভা অনুষ্ঠিত শ্রীমঙ্গল থানার নবাগত অফিসার ইনচার্জ এর সাথে আসক ফাউন্ডেশন শ্রীমঙ্গল এর মতবিনিময় সভা। বাংলাদেশকে পাকিস্তান বানানোর ষড়যন্ত্রে জিয়া  সিলেটে নানক টিকটক-পাবজি-ফ্রি ফায়ার-লাইকি বন্ধের নির্দেশ হাইকোর্টের
শিরোনাম :
রাগীব রাবেয়া মেডিকেল কলেজের অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা ও বিরোধের নিষ্পত্তি মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা’র পক্ষ থেকে কমলগঞ্জে ২০০০ পরিবারের মধ্যে ১০ কেজি করে চাল বিতরণ করেন আব্দুস শহিদ এমপি বঙ্গবন্ধু কৃষিক্ষেত্রে যুগান্তকারী পদক্ষেপ নিয়েছিলেন : ড. কলিমউল্লাহ সিলেটে তরুণীকে ধর্ষণ, যুবক কারাগারে এসএমপি’র টিলাগড় পুলিশ বক্সের শুভ উদ্বোধনঃ সিলেটে ২১৪ পিস ভারতীয় এনার্জি ড্রিংকসহ ২ জন আটক শ্রীমঙ্গল উপজেলা আওয়ামীলীগ কর্তৃক আয়োজিত নির্বাচনী কার্যক্রম পরিচালনা প্রস্তুতিতে বর্ধিত কর্মীসভা অনুষ্ঠিত শ্রীমঙ্গল থানার নবাগত অফিসার ইনচার্জ এর সাথে আসক ফাউন্ডেশন শ্রীমঙ্গল এর মতবিনিময় সভা। বাংলাদেশকে পাকিস্তান বানানোর ষড়যন্ত্রে জিয়া  সিলেটে নানক টিকটক-পাবজি-ফ্রি ফায়ার-লাইকি বন্ধের নির্দেশ হাইকোর্টের

কঠোর লকডানে সিলেটের চা বাগানে স্বাস্থ্যবিধির বালাই নেই; স্বাস্থ্য ঝুঁকিতে শ্রমিকরা

 আব্দুর রহমান হীরা::
  • সময় : শনিবার, ২৪ জুলাই, ২০২১
  • ১১৬ ৯৮ বার পঠিত

 

করোনা ভাইরাস থেকে রক্ষায় ২৩ জুলাই থেকে ৫ আগষ্ট পর্যন্ত সরকার কঠোর লকডাউন দিয়েছে। তবে এসময়েও সচল রয়েছে চা শিল্প। কোন ধরণের স্বাস্থ্যবিধি ও মাস্ক ব্যবহার ছাড়াই কর্মরত শতশত শ্রমিকরা। এতে করোনা সংক্রমণ বৃদ্ধি পাওয়ার আশঙ্কা করছেন স্থানীয় সচেতন চা শ্রমিক নেতৃবৃন্দরা।

সরজমিনে দেখা যায়, সিলেট নগরীর এয়ারপোর্ট রোড লাক্কাতুরা,  মালনিছড়া  ও ব্যক্তি মালিকানাধীন চা বাগান সমুহে পুরোদমে কাজকর্ম পরিচালিত হচ্ছে। তবে করোনাকালে চা শ্রমিকদের মধ্যে স্বাস্থ্যবিধি মানার কোন বালাই দেখা যায়নি। মাঝে মধ্যে দু’একজনের মুখে মাস্ক পরতে দেখা গেলেও অধিকাংশ শ্রমিকরা মাস্ক ব্যবহার ছাড়াই কাজকর্ম চালিয়ে যাচ্ছেন। তাদের প্রত্যেকেরই গাঁ ঘেষাঘেষি করে পাতি উত্তোলন, ওজন ও গাড়িতে তুলে দিতে দেখা যাচ্ছে। এসব বিষয়ে তদারকি করতেও সংশ্লিষ্ট চা বাগান কর্তৃপক্ষের তেমন কোন উদ্যোগ পরিলক্ষিত হয়নি।
এতে করোনা ভাইরাস সংক্রমণ বৃদ্ধির আংশঙ্কা করছেন স্থানীয় সচেতন চা শ্রমিক নেতৃবৃন্দরা।

লাক্কাতুরা চা শ্রমিক রবিদাস,  সীতারাম বীন বলেন, ‘চা শ্রমিকদের মধ্যে নেই মাস্ক। মানা হচ্ছে না স্বাস্থ্য বিধি। ইতিমধ্যে আমাদের চা বাগানের কিছু স্টাফও করোনায় আক্রান্তের সংবাদ শুনতে পাচ্ছি। তবে এ অবস্থার মধ্যে মাস্ক ব্যবহার ব্যতীত ও স্বাস্থ্যবিধি না মানার কারণে করোনা সংক্রমণ বৃদ্ধির আশংঙ্কা দেখা দিয়েছে।’ তারা আরও বলেন, ‘করোনা ভাইরাসে সবচেয়ে ঝুঁকিতে আছে দেশের চা শ্রমিকরা। যেখানে চা পাতা তোলা হয় সেখানে স্যানিটাইজার, সাবান থাকে না। এমনকি খাবারে বিশুদ্ধ পানিরও সংকট থাকে। আর গাঁ ঘেষাঘেষি করে পাতি তোলা, ওজন দেয়া ও গাড়িতে লোড করা এসবই চা শ্রমিকদের জন্য মারাত্মক ঝুঁকি।’

চা শ্রমিক নেতৃবৃন্দরা জানান, চা বাগান খোলা রাখতে আমাদের আপত্তি নেই। তবে যে হারে করোনা সংক্রমণ বৃদ্ধি পাচ্ছে তাতে স্বাস্থ্যবিধি ও মাস্ক ব্যবহার এবং নিয়মিত হাত ধোঁয়ার সুব্যবস্থা না থাকলে আরও বড় ধরণের ঝুঁকিতে পড়তে হবে।

এ ব্যাপারে মোবাইল ফোনে জানতে চাইলে  মালনিছড়া  চা বাগান ব্যবস্থাপক কোন কথা বলতে অনীহা প্রকাশ করেন। তবে ওই চা বাগান ম্যানেজমেন্টের একজন কর্মকর্তা নিজের নাম ও পরিচয় গোপন রেখে বলেন, সরকারি সিদ্ধান্ত মোতাবেক চা শিল্পে স্বাস্থ্যবিধি মেনেই কাজকর্ম পরিচালিত হচ্ছে। তিনি আরও বলেন, চা বাগান বন্ধ থাকলে কঁচি পাতি বিনষ্ট হবে এবং বড় ধরণের লোকসান গুণতে হবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন:
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
🔻 আরও পড়ুন

ফেসবুকে আমরা