1. admin@sylhetbhumi24.com : admin :
শুক্রবার, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০২:৫৩ পূর্বাহ্ন
নোটিশ :
শ্রীমঙ্গলে হাজী সেলিম ফাউন্ডেশনের প্রধান কার্যালয় উদ্বোধন আব্দুস শহীদ এমপির রোগমুক্তিতে উপজেলা প্রশাসনের দোয়া মাহফিল শ্রীমঙ্গলে গাঁজাসহ এক যুবক আটক জুড়ীতে ভোক্তা-অধিকার অভিযানে গ্যাস সিলিন্ডার ব্যবসায়ীর জরিমানা শ্রীমঙ্গল শহর সিসিটিভি স্থাপন ও ব্যবস্থাপনা বিষয়ক মত বিনিয়র সভা চা শ্রমিকদের ২৬ লক্ষ টাকা অনুদান বিতরণ করলো চা বোর্ড শ্রীমঙ্গলে অবাধে বালুবহন গাড়ি চলাচল বন্ধ দূর্ঘটনা জড়িতদের শাস্তির দাবিতে মানববন্ধন ওসি তদন্ত হুমায়ুনের মানবিকতা বেঁচে গেল ভারসাম্যহীন গর্ভবতী তরুণী ও পুত্র সন্তান ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত, শ্রীমঙ্গলে প্রীতম দাশ গ্রেফতার শ্রীমঙ্গল থানা পুলিশের সহযোগিতায় পাগলী চুমকীর কোলে এখন ফুটফুটে শিশু
শিরোনাম :
শ্রীমঙ্গলে হাজী সেলিম ফাউন্ডেশনের প্রধান কার্যালয় উদ্বোধন আব্দুস শহীদ এমপির রোগমুক্তিতে উপজেলা প্রশাসনের দোয়া মাহফিল শ্রীমঙ্গলে গাঁজাসহ এক যুবক আটক জুড়ীতে ভোক্তা-অধিকার অভিযানে গ্যাস সিলিন্ডার ব্যবসায়ীর জরিমানা শ্রীমঙ্গল শহর সিসিটিভি স্থাপন ও ব্যবস্থাপনা বিষয়ক মত বিনিয়র সভা চা শ্রমিকদের ২৬ লক্ষ টাকা অনুদান বিতরণ করলো চা বোর্ড শ্রীমঙ্গলে অবাধে বালুবহন গাড়ি চলাচল বন্ধ দূর্ঘটনা জড়িতদের শাস্তির দাবিতে মানববন্ধন ওসি তদন্ত হুমায়ুনের মানবিকতা বেঁচে গেল ভারসাম্যহীন গর্ভবতী তরুণী ও পুত্র সন্তান ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত, শ্রীমঙ্গলে প্রীতম দাশ গ্রেফতার শ্রীমঙ্গল থানা পুলিশের সহযোগিতায় পাগলী চুমকীর কোলে এখন ফুটফুটে শিশু

বন্যা মোকাবিলায় ৪৫০০ কোটি টাকা দিচ্ছে বিশ্বব্যাক

বিশেষ প্রতিবেদক।।
  • সময় : রবিবার, ১৭ জুলাই, ২০২২
  • ৫৫ ৯৮ বার পঠিত

স্মরণকালের ভয়াবহ বন্যায় চরম বিপর্যয়ের মুখে পড়েছেন সিলেট ও সুনামগঞ্জের মানুষ। উত্তরের কিছু জেলায়ও ভয়াবহ রূপ নেয় বন্যা পরিস্থিতি। এ বন্যা মোকাবিলা ও পরবর্তী ক্ষয়ক্ষতি কাটিয়ে উঠতে ৫০ কোটি ডলার ঋণ অনুমোদন করেছে বিশ্বব্যাংক। ডলারপ্রতি ৯০ টাকা ধরলে বাংলাদেশি মুদ্রায় এ ঋণের পরিমাণ দাঁড়ায় চার হাজার ৫০০ কোটি টাকা।
বিশ্বব্যাংকের এ ঋণে সিলেট ও সুনামগঞ্জের ১৪ উপজেলার ১ দশমিক ২৫ মিলিয়ন বা সাড়ে ১২ লাখেরও বেশি মানুষ উপকৃত হবেন। বন্যাপ্রবণ জেলায় অভ্যন্তরীণ বন্যার বিরুদ্ধে দুর্যোগ প্রস্তুতির উন্নতিতেও এ ঋণ ব্যবহার করা হবে। বিশ্বব্যাংকের ঢাকা অফিস থেকে এ তথ্য নিশ্চিত করা হয়।
‘রেজিলেন্ট ইনফ্রাসট্রাকচার অব অ্যাডাপটেশন অ্যান্ড ভালনারেবিলিটি রিডাকশন’ প্রকল্পের আওতায় এ ঋণ ব্যবহার করা হবে। প্রকল্পের আওতায় ৫০০টির বেশি বহুমুখী বন্যা আশ্রয়কেন্দ্র, অ্যাকসেস রাস্তা এবং জলবায়ু সহনশীল অবকাঠামো নির্মাণ করা হবে। এর মাধ্যমে নদী ও আকস্মিক বন্যার ঝুঁকি কমাতে সাহায্য করবে।
স্বাভাবিক সময়ে বন্যা আশ্রয়কেন্দ্রগুলো প্রাথমিক বিদ্যালয় হিসেবে ব্যবহার করা হবে। এসব অবকাঠামোতে সৌরশক্তি ব্যবস্থা, পানি, স্যানিটেশন এবং নানান স্বাস্থ্য সুবিধা থাকবে। নারী ও দুর্বল জনগোষ্ঠীর জন্যও বিশেষ ব্যবস্থা থাকবে এসব আশ্রয়কেন্দ্রে। প্রকল্পটি বন্যার প্রস্তুতি ও প্রতিক্রিয়া এবং আচরণগত পরিবর্তনের পদক্ষেপে সরকারি সংস্থাগুলোর সক্ষমতা জোরদারে সহায়তা করবে।
বাংলাদেশে নিযুক্ত বিশ্বব্যাংকের কান্ট্রি ডিরেক্টর মার্সি টেম্বন বলেন, ‘সিলেট অঞ্চলে ভয়াবহ বন্যা হয়েছে। জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে এ দুর্যোগ দেখা দিয়েছে। ক্রমবর্ধমান ঝুঁকি, অপ্রত্যাশিত বন্যা এবং তীব্র প্রাকৃতিক দুর্যোগে ভয়াবহ ক্ষতি হয়েছে। এছাড়া বাংলাদেশকে বন্যাপ্রবণ এলাকায় দুর্যোগ প্রস্তুতির উন্নতিতে সাহায্য করবে প্রকল্পটি। এটি দুর্যোগ প্রতিক্রিয়া থেকে একটি দুর্যোগ ঝুঁকি ব্যবস্থাপনা পদ্ধতিতে দেশের রূপান্তরকেও সহায়তা করবে।’
বিশ্বব্যাংকের দৃষ্টিতে, বাংলাদেশ একটি নিম্নাঞ্চলীয় ব-দ্বীপ। বন্যা ও ঘূর্ণিঝড়সহ জলবায়ু পরিবর্তনজনিত প্রাকৃতিক দুর্যোগের প্রভাবের জন্য অত্যন্ত ঝুঁকিপূর্ণ দেশ। জলবায়ু পরিবর্তনের সঙ্গে সঙ্গে বন্যার মাত্রা ও তীব্রতা বাড়ছে। প্রতি বছর বন্যা এবং নদীভাঙনে প্রায় এক মিলিয়ন মানুষকে প্রভাবিত করে।

সংবাদটি শেয়ার করুন:
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
🔻 আরও পড়ুন